ঝালমুড়ি নিয়ে ক্যাপশন, ঝালমুড়ি নিয়ে স্ট্যাটাস।

শৈশবে স্কুল জীবনের স্মৃতির পাতায় যে খাবারটির গন্ধ আজও মিশে আছে তার নাম হচ্ছে ঝালমুড়ি। ঝাল মুড়ি অতি সাধারণ নাস্তা জাতীয় একটি খাবার হলেও এর মাঝে নিষেধ আছে হাজারো সুন্দর মুহূর্ত আবেগ অনুভূতি ও ভালোবাসা। স্কুল জীবনে বন্ধুদের সাথে অথবা সহপাঠীদের সাথে কিংবা টিফিনের ফাঁকে আড্ডায় সেই ঝালমুড়ি খাওয়ার মুহূর্তটা প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকে। সময় পরিস্থিতির ভিড়ে যদিও মানুষ এখন উঁচু অবস্থানে অবস্থান করে থাকে সেই সাথে উন্নত জীবন যাপন করে থাকে কিন্তু তারপরেও প্রতিটি মানুষের মনে পড়ে থাকে সেই স্কুল জীবনে বন্ধুদের সাথে খাওয়া ঝালমুড়ির দিকে। এই ঝাল মুড়িতে মিশে থাকে স্কুল জীবনের হাজার স্মৃতি ও প্রিয় মানুষদের খুনসুটি। তাই তো আজকে আপনাদের জন্য ঝালমুড়ি নিয়ে ক্যাপশন ও ঝালমুড়ি নিয়ে স্ট্যাটাস। তাই আশা করা যায় আমাদের এই প্রতিবেদনটি আপনাদের সকলের কাছে অনেক ভালো লাগবে।

ঝাল মুড়ি একটি মোহনীয় খাবারের নাম। এটি পুষ্টিকর খাবার না হলে অধিকাংশ মানুষের কাছে এই খাবারটি অনেক পছন্দনীয়। এই খাবারটির জনপ্রিয়তা প্রতিটি মানুষের স্কুল জীবনের সোনালী দিনগুলোতে মিশে আছে। স্কুল জীবনের প্রতিটি শিক্ষার্থীর একটি পছন্দের খাবার হচ্ছে ঝাল মুড়ি। যা মুড়ি চানাচুর ছোলা বুট মসলা মরিচ পেঁয়াজ ধনিয়া পাতা শসা ও সরিষার তেলের সংমিশ্রণে তৈরি করা হয়। এই খাবারটি সীমিত মূল্য হলেও শিক্ষার্থীদের কাছে কিংবা ছোটদের কাছে মূল্যবান একটি খাবার।

আমাদের প্রত্যেকের স্কুল জীবনের স্মৃতিতে এই খাবারটি মিশে আছে। কোলাহল যুক্ত ইস্কুল জীবন বন্ধুদের সাথে পথ চলা টিফিনের আড্ডা কিংবা গ্রুপে যাওয়া পিকনিক স্পট থেকে শুরু করে প্রতিটি স্থানে এই খাবারটির জনপ্রিয়তা রয়েছে। স্কুল জীবনে বন্ধুদের সাথে ঝাল মুড়ি খাওয়ার মুহূর্ত প্রতিটি মানুষের স্মৃতির মনিকোঠায় চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকে কেননা সে সময়ে সকলের কাছে ঝালমুড়ি ছিল অনেক স্বাদের একটি খাবার। যেখানে বন্ধুদের খুনসুটি গল্প জড়িয়ে ছিল। এখন যদিও আগের মতই ঝাল মুড়ি খাওয়া হয় কিন্তু স্কুল জীবনের ঝালমুড়ি খাওয়ার মুহূর্ত কিংবা স্বাদ কোনটাই পাওয়া যায় না। প্রতিটি মানুষের জীবনে সোনালী দিনগুলোর কথা স্মরণ করলে প্রতিটি বিষয়বস্তুর সাথে পাঁচ টাকা কিংবা দশ টাকার ঝাল মুড়ি র গল্পটা খুঁজে পাওয়া যায়।

ঝালমুড়ি নিয়ে ক্যাপশন

ঝালমুড়ি এমন একটি খাবার যা মুড়ি চানাচুর মসলার সংমিশ্রণে তৈরি করা হয়। এটি বাংলাদেশ থেকে শুরু করে ভারতের স্কুল কলেজ পার্ক কিংবা রাস্তার ধারে ছোট ছোট দোকানে বিক্রি করা হয় এছাড়াও গ্রামে-গঞ্জে ফেরি করে ঝাল মুড়ি বিক্রি করা হয়। ঝালমুড়ি একটি মোহনীয় স্বাদের খাবার যা অধিকাংশ মানুষ অনেক পছন্দ করে থাকেন। এই খাবারটির জনপ্রিয়তা মূলত স্কুল কিংবা কলেজ জীবনে সবথেকে বেশি হয়ে থাকে। কেননা স্কুল জীবনে কিংবা কলেজ জীবনে বন্ধুদের সাথে ঝালমুড়ি খেয়ে আড্ডায় মেতে উঠার মত আনন্দ পূর্ণ মুহূর্ত কারো জীবনে দ্বিতীয়টি আর হতে পারে না। তাইতো বন্ধুদের স্মৃতিচারণে কিংবা সোনালী দিনের কথা মনে করে অনেকেই ঝালমুড়ি নিয়ে ক্যাপশন গুলো শেয়ার করেন। এজন্যই আজকে ঝালমুড়ি নিয়ে সুন্দর সুন্দর ক্যাপশন গুলো তুলে ধরা হয়েছে সুতরাং দেরি না করে চলুন আমাদের এই ক্যাপশন গুলো দেখে নিই।

শীতের আড্ডা জামানার প্রথম খাদ্য ঝালমুড়ি।

শরীর গরম করার জন্য ঝাল মুড়ি অতীব গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার।

ঝালমুড়ি নিয়ে স্ট্যাটাস

বর্তমানের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যাপক ব্যবহার চালু হওয়ার কারণে এখন আমরা আমাদের জীবনের প্রতিটি মুহূর্তকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অথবা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে থাকি। আমাদের জীবনে সোনালী দিনের স্মৃতিগুলো আমরা স্ট্যাটাসের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলি যেখানে মিশে থাকে হাজারো স্মৃতিময় কথা মুহূর্ত। আমাদের জীবনের স্মৃতিতে জড়িয়ে থাকা এরকমই একটি খাবারের নাম হচ্ছে ঝাল মুড়ি। যার সাথে মিশে আছে হাজারো স্মৃতি। এজন্যই আমরা আপনাদের উদ্দেশ্যে আজকে ঝালমুড়ি নিয়ে সুন্দর সুন্দর স্টাটাস গুলো তুলে ধরেছি। যেগুলো আপনাদের জীবনের সুন্দর স্মৃতিচারণ করতে সাহায্য করবে। নিচে ঝালমুড়ি নিয়ে স্টাটাস গুলো তুলে ধরা হলো:

ঐসব, breakfast, নাস্তা ছাড়
চলো ঝালমুড়ি খাবো।

এক টাকা দিয়ে নারিকেল আইসক্রিম দুই টাকা দিয়ে ঝালমুড়ি।
আর পকেটে ৫ টাকা থাকলে বিল গেটস আমি।

ঝালমুড়ি খেয়ে ঝালের ঠেলায়,
চোখে পানি চলে আসছে।
চোখ মুছতে মুছতে বাসায় যাচ্ছিলাম,
কে যেন ছবি তুলে ক্যাপশন দিয়েছে।
ভালোবাসা কেন এত কাঁদায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top